You Are Not Log In

Log In


or

Create Account

Assalamu Walaikum
New Update Coming soon...

()

You Profile - Bdup20 Request or Report - bdup20
Timeline
Popular

Category


Bdup20 Search Menu
You must registeredRegister Here..
Vxp Mre App & Games Zone

UPLOAD AN FILE


Bdup20.Likesyou.Org

সত্য শেখার সন্ধ্যানে । রাকিব । বই পড়া । bdup20.aino.pk

লেখক: admin

About 9 months ago

বিছানায় শুয়ে শুয়ে হাতে নিয়ে বই পড়তে থাকা এসএসসি পরীক্ষার্থী সোহানকে লক্ষ্য করে তার মামা জিজ্ঞেস করলেন,

সোহান,তুমি কী করছো?
বিছানা থেকে লাফ দিয়ে উঠে বই হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে সোহান বলল,মামা!আমি বই পড়ছিলাম।

অতঃপর ভাগনাকে পাশে বসিয়ে মামা জিজ্ঞেস করলেন,তুমি কী ধরণের বই পড়ছিলে,সোহান?

--এই তো মামা,একজন বিখ্যাত রাজনীতিবিদের জীবনী বই পড়ছিলাম। --এই ধরণের বই কি তোমার সচরাচর পড়া হয়? --হ্যাঁ,মামা!এরকমই বিভিন্ন বিখ্যাত ব্যক্তিদের জীবনী বই পড়া হয়। --এসব বিখ্যাত ব্যক্তিদের জীবনী পড়ার কি তোমার কোনো উদ্দেশ্য আছে? --হ্যাঁ,আমার উদ্দেশ্য আছে।আমার উদ্দেশ্য হচ্ছে, আমি তাদের কারো ভালো আর্দশ নিজের মধ্যে ধারণ করতে চাই।ফলে তাদের বই বেশি পড়া হয়। --এই পর্যন্ত কি তুমি কোনো উত্তম আদর্শধারী মানুষের সন্ধান পেয়েছো? --জ্বি না মামা,এখনো তো মন মতো কাউকে পাই নি।তবে খুঁজে চলছি। --আচ্ছা!উত্তম আদর্শ রয়েছে এমন কোনো মানুষের জীবনী বই পড়তে যদি তোমাকে বলা হয় তবে কি তুমি সেটা পড়বে?

--একজন বই প্রেমিক হিসেবে আমি তো তা অবশ্যই পড়বো,মামা। তাছাড়া,এরকম জীবনীর খুঁজেই তো এতোদিন আছি। --তার আগে আমাকে একটি কথা বলো,সোহান! মনে করো,তোমাকে পৃথিবীর বিখ্যাত কোনো এক ব্যক্তি এসে বললেন যে,আমি তোমাকে এমন একজন মানুষের কথা বলবো যার মধ্যে উত্তম আদর্শ রয়েছে তবে কি তুমি সেই মানুষের জীবনী পড়বে? --পড়বো মানে!অবশ্যই পড়বো।কারণ এতো বড়ো একজন সম্মানীত মানুষ যদি আমাকে সত্যিসত্যি ভালো কোনো আদর্শবান ব্যক্তির জীবনীর কথা বলেন তবে তাতে নিশ্চয়ই অনেক কল্যাণকর কিছু থাকবে। তখন আমি বরং বইটি পড়ার জন্য আরও বেশি মুখিয়ে থাকবো এবং অন্যদেরকেও পড়তে উৎসাহ দিয়ে যাবো। --বেশ তো!এখন যদি ওই বিখ্যাত ব্যক্তি না হয়ে বরং ওই বিখ্যাত ব্যক্তির সৃষ্টিকর্তা তথা তোমার- আমার সৃষ্টিকর্তা স্বয়ং মহান রাব্বুল আলামিন তোমাকে আমাকে কোনো মানুষের আর্দশের কথা বলেন,আদর্শ অনুসরণ করার কথা বলেন তবে কি আমাদের সেই মানুষটির জীবনী পড়া উচিত নয়?

--কী বলেন মামা? --হ্যাঁ,তখন কি আমাদের মধ্যে ওই মহান ব্যক্তির জীবনী পড়ার জন্য আরও বেশি তাড়না কাজ করার কথা নয়?ওই বিখ্যাত ব্যক্তির বলা কথার মধ্যে যদি তুমি কল্যাণকর কিছু আশা করতে পারো তবে যেখানে স্বয়ং আল্লাহ তা'য়ালা বলছেন সেখানে কি অধিকতর কল্যাণকর না হওয়ার কোনো কারণ থাকতে পারে? এছাড়া,দুনিয়ার সামান্য একজন বিখ্যাত ব্যক্তির কথা যদি তোমার কাছে দামি মনে হয়,তাৎপর্যপূর্ণ মনে হয় তবে যখন আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লা নিজে বলেছেন তখন কি বিষয়টি আমাদের নিকট আরো দামি হওয়ার কথা নয়? আরো তাৎপর্যপূর্ণ হওয়ার কথা নয়? --তা তো অবশ্যই,মামা। স্বয়ং আল্লাহ বলবেন আর আমরা পড়বো না তা তো কোনোভাবেই হতে পারে না।কিন্তু আল্লাহ কি এ ব্যাপারে আমাদেরকে কিছু বলেছেন নাকি,মামা? --হ্যাঁ,নিশ্চয়ই।আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লা বলেছেন, তোমাদের জন্য অবশ্যই আল্লাহর রাসূলের (জীবনের) মাঝে অনুকরণযোগ্য উত্তম আদর্শ রয়েছে,আদর্শ রয়েছে এমন প্রতিটি ব্যক্তির জন্য,যে আল্লাহ তা'য়ালার সাক্ষাৎ পেতে আগ্রহী এবং পরকালের মুক্তির আশা করে,(সর্বোপরি) যে বেশি পরিমাণে আল্লাহ তা'য়ালাকে স্মরণ করে।

--মামা,এখন থেকে আমি অর্থসহ পবিত্র কোরআন পাঠ করবো। সত্যিই তো,আল্লাহ কী বলেছেন সেটা জানার জন্য আমাদের মধ্যে আরো বেশি আগ্রহ থাকা উচিত।অন্যথায়,মৃত্যুর পর না জানি আমাদেরকে কতো আপসোস করতে হবে। --হ্যাঁ,তাই করো।তার চেয়ে বড়ো হতভাগা আর কে হতে পারে যে তার জীবনে অনেক বিখ্যাত লেখকের গ্রন্থ পড়লো এবং অনেক কিছুই জানলো অথচ একজন মুসলিম হয়েও তার সৃষ্টিকর্তা উনার গ্রন্থে কী বলেছেন সেটা পড়লোও না এবং জানলোও না? সুতরাং নিজেকে যদি তুমি এমন হতভাগাদের দলে দেখতে না চাও,আপসোসকারীদের সঙ্গী হতে না চাও তবে আর দেরি করো না। অচিরেই আল্লাহর গ্রন্থ তথা পবিত্র কোরআন পাঠ করা শুরু করে দাও এবং প্রতিটি কথা বোঝার চেষ্টা করো,হৃদয় দিয়ে অর্থ অনুধাবন করার চেষ্টা করো।আর তাতেই জীবনের প্রকৃত দিকনির্দেশনা পেয়ে যাবে।এভাবেই একসময় পৌঁছে যাবে সফলতার চূড়ান্ত পর্যায়ে।ইন শা আল্লাহ! --মামা,আমাকে মূল্যবান কথাগুলো বলার জন্য আপনাকে আবারও অনেক ধন্যবাদ।আসলে আপনি যেভাবে বলেছেন সেভাবে কখনো চিন্তা করা হয়নি কিংবা কেউ এভাবে বলেও নি বিধায় এতো এতো লেখকের গ্রন্থ পড়েও নিজের সৃষ্টিকর্তার গ্রন্থ অর্থসহ বুঝে পড়া উচিত-সেই উপলব্ধিটুকুই আমার হয়নি।আর তাই কখনো গুরুত্ব দিয়েও পড়া হয়নি।আল্লাহ কী বলেছেন তা-ও জানা হয়নি।এটা আমার জন্য অনেক বড়ো এক দুর্ভাগ্যের বিষয় বটে। --যাইহোক,তুমি এখন বিষয়টি অনুধাবন করতে পেরেছো তাতেই ভালো।আলহামদুলিল্লাহ! তুমি এখন থেকে বেশি বেশি করে কোরআনের পিছনে সময় দাও, কোরআনকে নিজের সঙ্গী বানিয়ে নাও। একইসাথে, অন্যদেরকেও কোরআন পড়ার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করে যাও। তোমার সুসময়ে যদি তুমি কোরআনকে সঙ্গী করে রাখতে পারো তবে তোমার জীবনের কঠিন সময়ে তথা কবরের জগতে এবং পরকালের জগতে কোরআনও তোমার সঙ্গী হয়ে থাকবে।ইন শা আল্লাহ! --জ্বি মামা,আপনি খুব সুন্দর বলেছেন।আমি এখন থেকে কোরআনকে নিজের সঙ্গী বানানোর চেষ্টা চালিয়ে যাবো। ইন শা আল্লাহ!আমার জন্য আপনি দোয়া করবেন,মামা। --নিশ্চয়ই। রেফারেন্স: [১] সূরা আল আহযাব,আয়াত নং :২১ [২] সূরা আল ক্বালাম,আয়াত নং : ০৪ #বইপড়া #সীরাহ #rakibpost

পোস্টটি কেমন লেগেছে তা জানাতে একদম ভুলবেন না !

মন্তব্য 1 টি আছে।
Need Login or Sing Up

Guest 18 Dec 2021

Mashaallah

REPLY